শেষ ৬ বিশ্বকাপের ৫টিতেই চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া

0

রিকি পন্টিংয়ের অধীনে সর্বজয়ী এক দল পেয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। অ্যাডাম গিলক্রিস্ট, ম্যাথিউ হেইডেন, রিকি পন্টিং, ব্রেট লি, গ্লেন ম্যাকগ্রারা রীতিমত শাসন করেছিল ক্রিকেটের দুনিয়াকে। পন্টিংয়ের অধীনে থাকা সেই অস্ট্রেলিয়া ইতিহাসেরই সেরা দল কিনা, তা নিয়ে বরং বিতর্ক চলতে পারে। মাঝে অজি ক্রিকেটের সেই দাপুটে ভাব খানিক খর্ব হয়েছিল।

তবে প্যাট কামিন্সের অধীনে আরও একবার নতুন করে সেই দাপুটে দিন ফিরিয়ে আনতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। তবে এবার কামিন্সরা একা নন। সঙ্গে আছে নারীরাও। অ্যালিসা হিলি, বেথ মুনি, তাহলিয়া ম্যাকগ্রারা ছরি ঘোরাচ্ছেন নারী ক্রিকেটে। অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে দাপট এমন, শেষ ৬ বিশ্ব আসরের ৫টিতেই শিরোপা গিয়েছে অজিদের ঘরে।

শুরুটা অ্যালিসা হিলিদের হাত ধরে। ২০২২ সালের এপ্রিল মাসে অস্ট্রেলিয়া মেয়েরা ইংল্যান্ডকে হারিয়ে জিতে নেয় নারী বিশ্বকাপের শিরোপা। ফাইনালের সেই ম্যাচে ১৭০ রান করে দলকে প্রায় একাই জিতিয়েছিলেন হিলি। মেগ ল্যানিংয়ের অধিনায়কত্বে অজিরা পায় বিশ্বসেরার খেতাব। সেই বছর ছিল ছেলেদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এক মাত্র সেই প্রতিযোগিতা জিততে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। সুপার টুয়েলভে পর্বে হেরে যায় তারা। ইংল্যান্ড সে বার বিশ্বকাপ জিতে নেয়।

গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে অস্ট্রেলিয়াকে আরও একটি বিশ্বকাপ এনে দেন মেয়েরা। এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয় করে অজি নারীরা। দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। ৭৪ রান করে অপরাজিত থেকে ফাইনাল জিতিয়েছিলেন বেথ মুনি।

পরের গল্পটা অজি ছেলেদের। জুন মাসে অস্ট্রেলিয়া জিতে নেয় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ। ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে দেয় প্যাট কামিন্সের দল। এক ট্রাভিস হেডের কাছেই পরাস্ত হয় রোহিত শর্মা-বিরাট কোহলিরা। নভেম্বরে বিশ্বকাপে শুরুটা যাচ্ছেতাই হলেও, ফের সেরার মুকুট পরে অস্ট্রেলিয়া।

একদিনের বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি হয় ভারত-অস্ট্রেলিয়া। সেই প্রতিযোগিতাও জিতে নেন কামিন্সেরা। এখানে ভারতকে হারানোর কারিগর সেই ট্রাভিস হেড। ফাইনালে তার ১৩৭ ভারতকে কাঁদিয়েছিল তাদেরই ঘরের মাঠে। সবশেষ গতকাল রোববার সাফল্যের এই ধারায় যোগ দিল অস্ট্রেলিয়ার যুবারা। তাদের ঘরে এলো অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ। এবারও সেই ভারতকে হারিয়ে জয়ী অস্ট্রেলিয়া।

সামনে আসছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এই আসরেও স্বাভাবিকভাবেই ফেবারিটের তকমা নিয়েই পা রাখবে অস্ট্রেলিয়া। সেখানেও চ্যাম্পিয়ন হলে, বিশ্ব ক্রিকেটের সব শিরোপাই থাকবে তাদের কাছে। এছাড়া আরেক বিশ্বকাপ আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ নারী ক্রিকেট বিশ্বকাপের শিরোপা নেই তাদের হাতে। ২০২৩ সালের ওই আসরে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত।

এর বাইরে আইসিসির আরেক টুর্নামেন্ট ‘আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি’ এর আয়োজন আপাতত বন্ধ আছে। ২০২৫ সালে ফের মাঠে গড়াবে সেই প্রতিযোগিতা। ২০১৭ সালের সবশেষ আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল পাকিস্তান।