সালমানকে ‘রাজনৈতিক’ আশ্বাস মমতার, কী আশঙ্কা করলেন মুখ্যমন্ত্রী?

9

২৯তম কলকাতা চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বলিউডের ভাইজান সালমান খান। এ অভিনেতা ছাড়াও মঙ্গলবার বিকালে কলকাতার নেতাজি ইন্ডোরে উদ্বোধনী মঞ্চে ছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলী, শত্রুঘ্ন সিন্‌হা, সোনাক্ষী সিন্‌হা, মহেশ ভট্ট, অনিল কপূররা।

তবে অনুষ্ঠানের মূল আলো ছিলো সালমানের দিকে। ভাইজান আসি আসি করে এবার এলেন। আর এতেই আপ্লুত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সালমানকে ভাইফোঁটার আমন্ত্রণও জানান মুখ্যমন্ত্রী।

এদিকে সালমানের এ সফর ঘিরে একটি আশঙ্কা থেকে তাকে ‘রাজনৈতিক’ আশ্বাস দিয়েছেন মমতা।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, ‘সবাই লক্ষ্য করেন, ভাইজান এলো কি এলো না। ভাইজান এসেছে।’

মমতা সালমানকে বলেন, ‘কেউ যদি তাকে বিরক্ত করে (রাজনৈতিক) তাহলে তিনি যেন দিদিকে জানান। দিদি তার পাশে আছেন। বাংলা কাউকে ভয় পায় না। আমরা ভারতকে ভালোবাসি। তার জনগণকে ভালোবাসি। আমরা মানবিকতার পক্ষে।’

সালমানের উদ্দেশ্যে মমতা বলেন, সালমান যেন বাকিদেরও কলকাতায় নিয়ে আসেন। বাংলা ইন্ডাস্ট্রিকে যেন তারাও প্রমোট করেন।

তিনি বলেন, ‘সিনেমার ভাষা গ্লোবাল। বাংলা হল দেশের সংস্কৃতির রাজধানী। বাংলাই ছবির আদর্ গন্তব্যস্থল।’

এদিন মমতারও ভূয়সী প্রশংসা করেন সালমান খান। সালমান বলেন, ‘আমি শুনেছিলাম, দিদির বাড়ি অনেক ছোট। আমি সেটাই দেখতে গিয়েছিলাম। আমার ছোট ঘর, তার মধ্যে আমার মা বাস্তু মেনে সব ঘুরিয়ে রাখে। একদিন আমার বাবা বলে, ছেলের বিছানাটা খাঁড়া রেখে দাও। তাই আমি দেখতে গিয়েছিলাম। গিয়ে দেখলাম, আমার ঘরের থেকেও ছোট। আমি সত্যিই ঈর্ষান্বিত হয়েছি যে কী করে এই পদের কোনও ব্যক্তি এত ছোট ঘরে থাকতে পারে! উনি আমায় শিখিয়েছেন কীভাবে সাধারণভাবে থাকা যায়’।

প্রসঙ্গত, এদিন বলিউডের তারকাদের পাশাপাশি হাজির ছিলেন সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়, মাধবী মুখার্জি, লিলি চক্রবর্তী, রঞ্জিত মল্লিক, দীপঙ্কর দে, সব্যসাচী চক্রবর্তী, সন্দীপ রায়, গৌতম ঘোষ, অঞ্জন দত্ত থেকে শুরু করে হাজির ছিলেন প্রসেনজিৎ, দেব, রাজ চক্রবর্তী, কোয়েল মল্লিক, কৌশানী, সায়ন্তিকা, মিমি, নুসরাতের মতো তারকারাও। এক কথায় হাজির ছিল প্রায় গোটা টলিউড।