স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বহিষ্কারের বিষয়ে যা বললেন কাদের

10

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দেওয়া কাউকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আজ রবিবার (৩ ডিসেম্বর) আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে সমসাময়িক রাজনীতি বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচন নিয়ে কাদের বলেন, স্বতন্ত্র হলে বহিষ্কারের কথা বলেনি আওয়ামী লীগ।

সৎ সাহস থাকলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে চোরাগোপ্তা হামলা বাদ দিয়ে রাজপথের আন্দোলনে এসে মোকাবিলা করার চ্যালেঞ্জ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের এই নেতা। তিনি বলেন, লন্ডনে বসে ভুলের রাজনীতির কারণে বিএনপি অনেক নেতাকর্মীকে হারাবে।

কাদের বলেন, বিএনপির অনেক নেতা নির্বাচনে এসেছেন। বিএনপির এই নেতিবাচক রাজনীতিতে তারা আর থাকতে চান না। বিএনপি একটি দল নির্বাচনে না আসলে নির্বাচন অশুদ্ধ হয়ে যাবে না বলেও মনে করেন কাদের।

কাদের বলেন, ২৮টি নিবন্ধিত দল নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। বিএনপি একটি দল। তাদের ভুলের রাজনীতির কারণে অনেক দল তাদের কাছ থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে।

তিনি আরও বলেন, জনসমর্থনের অভাবে বিএনপির আন্দোলন মুখ থুবড়ে পড়েছে। তারা অগ্নিসন্ত্রাস, চোরাগোপ্তা হামলা, নাশকতা করছে। স্বাভাবিক পথ থেকে বিচ্যুত হয়ে রাজনীতিকে সন্ত্রাসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে বিএনপি। ২০১৪-১৫ এর অপকর্ম শুরু করেছে। পার্ক করা গাড়িতে আগুন দিয়েছে, গাড়ি ড্রাইভার-হেলপার মরে গেছে।

১৪ দলীয় জোটকে বাইরে রেখে নির্বাচনের কথা ভাবিনি। এডজাসমেন্ট, একোমডেশনের বিষয় আছে। যারা আগেও নির্বাচন করেছেন, জনগণের কাছে গ্রহণযোগ্য তারা অবশ্যই বাদ পড়বেন না বলেও বলেন কাদের।

কাদের বলেন, নেত্রীর একক চেষ্টায় নির্বাচন কমিশন স্বাধীন। স্বাধীন নির্বাচন কমিশনের পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। ওসি, ডিসি, ইউএনও ট্রান্সফার ইসি করছে। এগুলো সরকার করছে না। আওয়ামী লীগ এগুলো সাধুবাদ জানায়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে জাতিসংঘকে কথা বলতে হলে তাদের সাধারণ পরিষদ এবং নিরাপত্তা পরিষদের অনুমোদন লাগে।