বাংলাদেশীদের মধ্যে সর্বপ্রথম শিল্পী মাহফুজুর রহমানের দুবাইতে গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা অর্জন

235

প্রখ্যাত বাংলাদেশী শিল্পী মাহফুজুর রহমান তার সৃজনশীল শিল্পকর্মের জন্য এই বছরের মার্চ মাসে দুবাই কালচার থেকে মর্যাদাপূর্ণ গোল্ডেন রেসিডেন্সি কালচারাল ভিসা অর্জন করেছেন যা বাংলাদেশের শিল্প জগতের জন্য একটি গৌরবময় মুহূর্ত। গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের একটি বিশেষ উদ্যোগ যা বিভিন্ন দেশের প্রতিভাবান বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন সেক্টর থেকে মেধাবীদের এবং শিল্পীদের জনসমষ্টিকে উৎসাহিত করে এবং তাদের দেশে দীর্ঘমেয়াদী সময়ের জন্য বসবাসের ব্যবস্থা করে থাকে।

বাংলাদেশের শিল্পী জগতের পরিচিত মুখ মাহফুজুর রহমান যিনি তার অনন্য শৈলী এবং সৃজনশীল কাজের জন্য বেশ জনপ্রিয়। বহু বছর ধরেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রদর্শনী ও গ্যালারিতে তার শিল্পকর্মগুলো প্রদর্শিত হয়ে আসছে। তাঁর কাজগুলি একইভাবে শিল্পপ্রেমীদের এবং সমালোচকদের কাছে প্রশংসা পেয়েছে। এরই সাথে ২০২২ সালের শেষের দিকে বিশ্বের সর্বাধিক জাতীয়তার শিল্পীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ‘আর্ট লেসন’ নামক একটি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড এর খেতাবও তিনি অর্জন করেছেন।

গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা মাহফুজুর রহমানের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য অর্জন। এটি শিল্প জগতে তার অবদান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের শিল্প ও সংস্কৃতিতে একটি ইতিবাচক প্রভাব তৈরি করার সম্ভাবনার দ্বারকে আরো উন্মোচিত করবে। সংযুক্ত আরব আমিরাতে শিল্প ও সংস্কৃতির প্রচারের দায়িত্বে থাকা সরকারি সংস্থা হলো দুবাই কালচার। যা শিল্পী মাহফুজুর রহমানের জন্য এসকল সম্ভবনাগুলি বাস্তব করার মূল চাবিকাঠি হিসেবে কাজ করেছে। সংস্থাটি সক্রিয়ভাবে বিদেশী প্রতিভাবান জনবল কে তাদের দেশে এসে কাজ করার জন্য উত্সাহিত করেছে এবং গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা তাদেরই প্রমাণ।

মাহফুজুর রহমানের এই অর্জন বাংলাদেশে সঙ্গত কারনেই বর্নাঢ্যভাবে পালিত হয়েছে। এটি বাংলাদেশের শিল্পকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে স্বীকৃতি দিচ্ছে শুধু তাই নয় দেশের প্রতিভাবান শিল্পীদের অনন্য প্রতিভা ও দৃষ্টিভঙ্গি প্রদর্শনের জন্য একটি মূল্যবান প্ল্যাটফর্মও প্রদান করছে। তার এই কৃতিত্ব ও অর্জন বাংলাদেশ ও বিশ্বের অন্যান্য স্বশিক্ষিত শিল্পীদের জন্য অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে। এটি একজন মানুষের স্বপ্নকে অনুসরনের গুরুত্ব প্রকাশ করার পাশাপাশি প্রেরনাও যোগায়। এই স্বীকৃতিটি সকল স্বশিক্ষিত শিল্পীর কাছে গৌরবের একটি বিষয় এবং তাদের অপার সম্ভাবনাকে বাস্তবায়ন করার সাহস দিয়ে যাচ্ছে।

গোল্ডেন রেসিডেন্সি কালচারাল ভিসা হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত সরকারের বৃহত্তর কর্মসূচির একটি অংশ যা বিভিন্ন দেশের প্রতিভাবান ব্যাক্তিদের আকৃষ্ট করতে এবং তাদের দেশের অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বৃদ্ধিতে অবদান রাখতে উৎসাহিত করে। প্রকল্পটি শিল্প, বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তিসহ বিভিন্ন সেক্টর থেকে মেধাবী জনসমষ্টিকে আকৃষ্ট করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ২০১৯ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে সরকার প্রথমবারের মতো গোল্ডেন ভিসা প্রোগ্রামটি চালু করে৷ যা মূলত একটি দীর্ঘমেয়াদী রেসিডেন্সি প্রোগ্রাম। এর আওতায় দীর্ঘমেয়াদে বসবাস, ব্যবসার সুযোগ, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবাসহ নানান সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়ে থাকে। যারা সংযুক্ত আরব আমিরাতে দীর্ঘমেয়াদী বসবাস করার পাশাপাশি বেশ কিছু বাড়তি সুবিধাও ভোগ করতে চায় গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসাধারীদের সেই সকল ব্যক্তিদের জন্য একটি আকর্ষণীয় সু্যোগ।

অবশেষে, মাহফুজুর রহমানের দুবাই কালচার থেকে গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা অর্জন বাংলাদেশের শিল্প জগতের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য প্রাপ্তি এবং সেইসাথে তার প্রতিভা ও সম্ভাবনার স্বীকৃতিও প্রমান করে। গোল্ডেন রেসিডেন্সি ভিসা সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন দেশের প্রতিভাবান শিল্পদের জন্য একটি মূল্যবান সুযোগ এবং মাহফুজুর রহমানের অর্জন এই উদ্যোগের সাফল্যের একটি উজ্জ্বল উদাহরণ। আমরা আশা করি ভবিষ্যতে আরো গুনী শিল্পীরা একই রকম সাফল্য অর্জন করবে এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের বৃদ্ধি ও উন্নয়নে অবদান রাখবে।