সরকারি সিকিউরিটিজ ট্রেডিং বিষয়ে সিএসইর সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান

153

বাংলাদেশ পুঁজিবাজারে স্টক এক্সচেঞ্জ ট্রেডিং প্লাটফর্মে সরকারি সিকিউরিটিজ লেনদেন-এর গতি বেগবান করার জন্য জন্যে ও এ ব্যাপারে সচেতনতা তৈরির কার্যক্রমের অংশ হিসেবে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ পিএলসি (সিএসই) গত ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, এর চট্টগ্রামস্থ প্রধান কার্যালয়ে জুম প্লাটফর্মে একটি সচেতনতামূলক অনুষ্ঠান-এর আয়োজন করে । অনুষ্ঠানে বিভিন্ন মার্চেন্ট, এসেট ম্যানেজমেন্ট, কোম্পানিজ, ডিলার এবং ব্রোকারেজ কোম্পানিজ থেকে সম্মানিত প্রতিনিধিগন অংশগ্রহণ করেন ।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সিএসই’র ট্রেনিং এন্ড এওয়্যারনেস বিভাগের প্রধান এম সাদেক আহমেদ । তিনি সরকারি বন্ড ট্রেডিং-এর প্রেক্ষাপট ও এর সাম্প্রতিক সুবিধাদি সম্পর্কে অবহিতকরনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটি শুরু করেন । অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে সিএসইর ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ গোলাম ফারুক বলেন, বাংলাদেশে বন্ড মার্কেট খুবই ছোট , বাংলাদেশের জিডিপিতে এর অবদান নামমাত্র । কোম্পানিগুলোর মূলধন সংগ্রহে ব্যাংক ঋণের উপর বেশী নির্ভর করায় এই বাজার গভীরতা পায়নি । বন্ডের কম সরবরাহ বন্ড বাজার বিকাশের জন্য অনুকূল নয় ।

একটি কার্যকরী বন্ড বাজার থাকলে, সরকার মেঘা অবকাঠামো প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সহজেই এই বাজার থেকে নিয়মিত তহবিল সংগ্রহ করতে পারত । বন্ডগুলি ইক্যুইটির জন্য দীর্ঘমেয়াদী এবং স্বল্পমেয়াদী অর্থায়নের বিকল্প হিসেবে কাজ করে । বন্ডগুলি যদি পুঁজিবাজারে ট্রেডিং হয়, বন্ড মার্কেটের আকারও বৃদ্ধি পাবে, সাথে সাথে পুঁজিবাজারে পণ্যের বৈচিত্র্যতাও আসবে । আর সেক্ষেত্রে পুঁজিবাজার জিডিপি বৃদ্ধির পাশাপাশি লক্ষমাত্রা অর্জনে সহযোগী খাত হিসেবে উন্মোচিত হবে ।

সিএসইর পক্ষে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন, হেড অফ আইটি, মোহাম্মাদ মরতুজা আলম, হেড অফ ট্রেক মার্কেটিং এন্ড সার্ভিসেস , মোহাম্মদ মনিরুল হক, হেড অফ বিজনেস প্রোমোশন এন্ড মার্কেটিং , মোঃ নাহিদুল ইসলাম খান, হেড অফ সারভিলেন্স এন্ড মার্কেট অপারেসন্স, প্রমুখ । অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল)-এর সিডিএস অ্যাপ্লিকেশন এন্ড ট্রেনিং বিভাগের মোঃ মইনুল হক ।

তিনি বিপিআইডি থেকে বিওআইডি -তে শেয়ার পাঠানোর সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া উপস্থাপন করেন । সিএসই-এর আইটি বিভাগ থেকে স্টক এক্সচেঞ্জ ট্রেডিং প্লাটফর্মে সরকারি সিকিউরিটিজ লেনদেন এর সম্পূর্ণ প্রক্রিয়া উপস্থাপন করা হয় । পরবর্তীতে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের প্রেক্ষিতে উপস্থিত বক্তারা সেগুলোর বাস্তবসম্মত ও গৃহীত পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করেন ।

এখানে উল্লেখ্য যে, সিএসই সরকারি সিকিউরিটিজ লেনদেন এর প্রক্রিয়াটি সকলের কাছে বোধগম্য ও জনপ্রিয় করতে এবং এক্সচেঞ্জ প্লাটফর্ম-এর লেনদেন এর গতিশীলতা আনতে গত মে মাস থেকেই সরকারি সিকিউরিটিজ এর উপর বিভিন্ন ধরনের ট্রেনিং ও সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে । প্রতিবারের ন্যায় এবারও সিএসই’র এই অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রায় ২০০ জন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে আশা করেন যে, সরকারি সিকিউরিটিজ এর সেকেন্ডারি লেনদেন, স্টক এক্সচেঞ্জ-এর প্লাটফর্মে করার মাধ্যমে দেশে একটি প্রানবন্ত বন্ড মার্কেট গড়ে উঠবে । এখন থেকে বাংলাদেশের পুঁজিবাজার শুধু ইকুইটি মার্কেটের উপর নির্ভরশীল হবে না বরং এটি বন্ড মার্কেটের উপরও নির্ভরশীল হবে এবং এতে করে বিনিয়োগকারীদের ঝুঁকিও অনেকখানি হ্রাস পাবে । সেই সাথে দেশের পুঁজিবাজার দেশী ও বিদেশী বিনিয়োগকারীদের সক্রিয় অংশগ্রহনে আরও সম্প্রসারিত হবে ।