নেইমারের স্পেশাল বিশ্বকাপ

0

এবার নিয়ে তৃতীয় বিশ্বকাপ মিশনে ব্রাজিল সেনসেশন নেইমার। প্রথমবার বিশ্বকাপে ঘরের আসরে ইনজুরির কারণে শেষ আট থেকেই শেষ হয়ে যায় তার বিশ্বকাপ স্বপ্ন। ২০১৮ সালে সর্বশেষ রাশিয়া বিশ্বকাপে শেষ আটেই থেমে যায় ব্রাজিল। সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে হার মানে বেলজিয়ামের কাছে। এবার নিজের তৃতীয় বিশ্বকাপকে স্পেশাল বলে মনে করছেন নেইমার।

দা গার্ডিয়ান পত্রিকাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই ব্রাজিল গোল মেশিন বলেন, ‘প্রথম বিশ্বকাপটা আমার জন্য ছিল অন্যরকম। কেননা ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে আমরা নিজের উঠোনে খেলেছি। দ্বিতীয় বিশ্বকাপে খেলেছি ইউরোপে। তবে এবারের বিশ্বকাপ আমাদের জন্য খুবই স্পেশাল।’ ওই সাক্ষাৎকারে নেইমার বলেন, ‘এটাও ঠিক যে বিশ্বকাপে অনেক বিস্ময়কর ঘটনা ঘটে। এমন কিছু দল যাদের কথা হয়তো কেউই হিসাবের মধ্যেই নেয়নি তারাও দারুণ কিছু ঘটিয়ে ফেলে। তার পরও আমি মনে করি আর্জেন্টিনা, জার্মানি, স্পেন ও ফ্রান্স এই দলগুলোর শিরোপা জয়ের সামর্থ্য আছে। সঙ্গে শিরোপার লড়াইয়ে আছি আমরাও।’

আগের দুই বিশ্বকাপ থেকে সর্বমোট চার গোল করেছেন নেইমার। চলতি কাতার মিশনে এক ঢিলে অনেকগুলো পাখি শিকারের সুযোগ নেইমারের সামনে। দেশের জার্সিতে তৃতীয় সর্ব্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। ৯২ ম্যাচ খেলে ৫৯ গোল করেছেন নেইমার। তার উপরে আছে কিংবদন্তির পেলে (৭৭ গোল) ও রোনালদো (৬২)। হেক্সা মিশনে চার গোল করলেই রোনালদোকে পেছনে ফেলে দুইয়ে উঠে আসবেন নেইমার।

ব্রাজিলের হেক্সা মিশন নিয়ে কিছুটা নীরব আছেন নেইমার। তবে সম্প্রতি ব্রাজিলের লোগোর পাশে ছয় তারকা ফটোসংবলিত সামাজিক মাধ্যমে একটি ফটো পোস্ট করেছেন নেইমার। এ নিয়ে ব্রাজিলের আরেক ফরোয়ার্ড রিচার্লিসন বলেছেন, ‘নেইমার এই ফটোতে বোঝাতে চেয়েছেন এটা তার স্বপ্ন। তিনি (নেইমার) দেশের হয়ে ষষ্ঠ শিরোপা জিততে চান। নেইমার খুশি থাকার অর্থ হচ্ছে আমরাও খুশি। আর এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’